মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৬ অক্টোবর ২০২০

প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ বিভাগ সম্পর্কে

প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শ বিভাগ

 

এনআইএলজি’তে সাধারণত: স্থানীয় সরকার বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। তবে বিভিন্ন সংস্থা/প্রকল্পের চাহিদার প্রেক্ষিতে অন্যান্য বিষয়ে যেমন: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ সংরক্ষণ, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচী ইত্যাদি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

(ক) প্রশিক্ষণের প্রকার/ধরণ: এনআইএলজি প্রশিক্ষণার্থীদের চাহিদার সাথে সমন্বয় রেখে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে। সাধারনত ছয় ধরনের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয় যেমন:-

  • অবহিতকরণ কোর্স;
  • বুনিয়াদী কোর্স;
  • বিশেষায়িত বিভিন্ন কোসর্;
  • রিফ্রেশাসর্ কোর্স;
  • প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ (টিওটি) কোর্স;
  • চাহিদা ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কোর্স প্রভৃতি।

(খ) প্রশিক্ষণার্থী: এনআইএলজি প্রধানত স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের নির্বাচিত প্রতিনিধি ও নিয়োজিত কর্মকর্তাগণকে প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদস্য; উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও সদস্য;  জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য ও কর্মকর্তা-কর্মচারী, পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান সমূহে কর্মরত কর্মচারীগণ’কে সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার সচিবদের দীর্ঘমেয়াদী বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ ও বিষয়ভিত্তিক বিশেষায়িত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এছাড়া স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীগণকে বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলিতে দায়িত্ব পালনরত সকল নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি এবং কর্মকর্ত-কর্মচারীগণই এনআইএলজি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন।  

(গ) প্রশিক্ষণের পরিধি: এনআইএলজি’র প্রশিক্ষণ পরিধি নিম্নরূপ -

  1. স্থানীয় সরকার আইন, বিধিমালা, নীতিমালা;
  2. আর্থিক ব্যবস্থাপনা (ক্রয়, কর, বাজেট, হিসাব ও নিরীক্ষা);
  3. অফিস ব্যবস্থাপনা;
  4. স্থানীয় পর্যায়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন;
  5. জেন্ডার ইস্যুজ;
  6. পরিবেশ সংরক্ষণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা;
  7. স্থানীয় পর্যায়ে বিচার ব্যবস্থাপনা  (যেমন- গ্রাম আদালত, বিরোধ মিমাংসা বোর্ড);
  8. স্থানীয় সরকার সংশ্লিষ্ট সরকারী নীতিমালা;
  9. এসডিজি অনুযায়ী বিভিন্ন উন্নয়নমূলক বিষয়;
  10. আইসিটি এবং কম্পিউটারের ব্যবহার;
  11. জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন, শিশু অধিকার, বাল্য বিবাহ ও যৌতুক, স্যানিটেশন, ইত্যাদি;
  12. সংশ্লিষ্ট আইন (মুসলিম ও হিন্দু, পারিবারিক আইন, গ্রাম আদালত সংশ্লিষ্ট আইন,দূর্নীতি দমন আইন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এবং চোরাচালান প্রতিরোধ আইন ইত্যাদি)।
  13. জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল, ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং ইনোভেশন ইত্যাদি।

(ঘ)  প্রশিক্ষণ পদ্ধতি: প্রশিক্ষণসূচি প্রণয়নের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণার্থীর প্রত্যাহিক কর্মের সাথে সংশ্লিষ্ট এবং চাহিদার কথা বিবেচনা করা হয়ে থাকে। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণমূলক পদ্ধতির উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। প্রশিক্ষণে অনুসরণীয় সাধারন পদ্ধতিসমূহ হলো-

  • বক্তৃতা                             
  • ডেমনস্ট্রেশন
  • দলীয় আলোচনা                           
  • অভিজ্ঞতা বিনিময়
  • অনুশীলন                          
  • ব্রেইন স্টর্মিং
  • কেইস স্টাডি                      
  • মুক্ত আলোচনা
  • ভূমিকা অভিনয়
  • ভিডিও চিত্র উপস্থাপন
  • মাল্টিমিডিয়া উপস্থাপন
  • ফিল্ড ভিজিট

(ঙ)  প্রশিক্ষণ নেটওয়ার্ক: এনআইএলজি পরিকল্পনা মাফিক সফলতার সাথে প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য একটি কার্যকরী প্রশিক্ষণ নেটওয়ার্ক অনুসরণ করে থাকে। এ পদ্ধতিতে এনআইএলজি বিভাগ, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা গ্রহণ করে থাকে। কেন্দ্রীয়ভাবে পরিকল্পনা প্রণয়ন করে জেলা ও উপজেলা প্রশিক্ষকগণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হয়। জেলা পর্যায়ে জেলা রিসোর্স টিম ও উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা রিসোর্স টিমের কর্মকর্তাগণ এনআইএলজি থেকে প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ (টিওটি) পেয়ে থাকেন। প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রশিক্ষক থাকায় সারাদেশে একই মানের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে।


Share with :

Facebook Facebook